অপ্রদর্শিত আয় বৈধ করার সুযোগ

Displaying 1-1 of 1 result.

অপ্রদর্শিত আয় বৈধ করার সুযোগঃ

ক। আয়কর অধ্যাদেশ, ১৯৮৪ তে ধারা 19BBBBB এর সন্নিবেশ [আবাসিক বাড়ী/এ্যাপার্টমেন্ট নির্মাণ/ক্রয়ে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বিশেষ সুবিধা প্রদান]
অর্থ আইন, ২০১৩ এর মাধ্যমে আয়কর অধ্যাদেশ, ১৯৮৪ এ নতুন ধারা 19BBBBB সন্নিবেশ করা হয়েছে। এ ধারার বিধান অনুযায়ী একজন করদাতা যদি আবাসিক প্রয়োজনে বাড়ী বা এ্যাপার্টমেন্ট ক্রয়ে/নির্মাণে বিনিয়োগ করেন এবং সংশ্লিষ্ট বাড়ী বা এ্যাপার্টমেন্টের পরিমাপের উপর নির্দিষ্ট হারে কর প্রদান করেন তাহলে কর বিভাগ কর্তৃক বিনিয়োগের উৎস সম্পর্কে কোন প্রশ্ন উত্থাপন করা হবে না। নিম্নের সারণীতে বাড়ী/এ্যাপার্টমেন্টের অবস্থানভেদে করের হার দেখানো হলো

বাড়ী/ এ্যাপার্টমেন্ট এর অবস্থান কর হার
১। গুলশান মডেল টাউন, বনানী, বারিধারা, মতিঝিল    
বাণিজ্যিক এলাকা, দিলকুশা বাণিজ্যিক এলাকায়    
(ক)   ২০০ বর্গমিটার আয়তনের মধ্যে হলে   
(খ) ২০০ বর্গমিটার এর অধিক আয়তনের ক্ষেত্রে   


 

প্রতি বর্গমিটারে ৫ হাজার টাকা
প্রতি বর্গমিটারে ৭ হাজার টাকা

 

২। ঢাকার ধানমন্ডি আবাসিক এলাকা, ডিওএইচএস, মহাখালী,
লালমাটিয়া হাউজিং সোসাইটি, উত্তরা মডেল টাউন,
বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা, ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট
কারওয়ান বাজার, বিজয়নগর, সেগুনবাগিচা এবং নিকুঞ্জ;
চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ, খুলশি, আগ্রাবাদ এবং নাসিরাবাদ এলাকায়
(ক)   ২০০ বর্গমিটার আয়তনের মধ্যে হলে   
(খ) ২০০ বর্গমিটার এর অধিক আয়তনের ক্ষেত্র  

 

 

 

 

প্রতি বর্গমিটারে ৪ হাজার টাকা

প্রতি বর্গমিটারে ৫ হাজার টাকা

৩। ক্রমিক নং ১ ও ২ এ  বর্ণিত এলাকা ব্যতীত ঢাকা ও
চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের অন্যান্য এলাকা এবং অপরাপর
সিটি কর্পোরেশনভূক্ত এলাকায়
(ক)   ২০০ বর্গমিটার আয়তনের মধ্যে হলে  
(খ) ২০০ বর্গমিটার এর অধিক আয়তনের ক্ষেত্রে   

 

 

প্রতি বর্গমিটারে ২ হাজার টাকা

প্রতি বর্গমিটারে ৩ হাজার টাকা;
 

৪। জেলা সদরে অবস্থিত পৌরসভায়
(ক)   ২০০ বর্গমিটার আয়তনের মধ্যে হলে    প্রতি বর্গমিটারে ১ হাজার টাকা
(খ)   ২০০ বর্গমিটার এর অধিক আয়তনের ক্ষেত্রে    প্রতি বর্গমিটারে ১ হাজার ৫’শ  টাকা
৫। অন্যান্য এলাকায়
(ক)   ২০০ বর্গমিটার আয়তনের মধ্যে হলে  
(খ)   ২০০ বর্গমিটার এর অধিক আয়তনের ক্ষেত্রে   

 

 

প্রতি বর্গমিটারে ৬’শ টাকা

প্রতি বর্গমিটারে ৮’শ টাকা

৫। অন্যান্য এলাকায়
(ক)   ২০০ বর্গমিটার আয়তনের মধ্যে হলে  
(খ)   ২০০ বর্গমিটার এর অধিক আয়তনের ক্ষেত্রে  

 

প্রতি বর্গমিটারে ৪’শ টাকা

প্রতি বর্গমিটারে ৮’শ টাকা

এ পদ্ধতিতে বিনিয়োগ প্রদর্শনের ক্ষেত্রে নিম্নবর্ণিত শর্ত পরিপালন করতে হবে

►    যে বছর নির্মাণ সমাপ্ত হয়েছে অথবা প্রযোজ্য ক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশন/পজেশন হস্তান্তর সমাপ্ত হয়েছে সে বছরের সাথে সংশ্লিষ্ট কর বছরে এরূপ বিনিয়োগ প্রদর্শন/ঘোষণা করতে হবে।
►    কোন করদাতা যদি ইতোপূর্বে দেশের যে কোন সিটি কর্পোরেশন এলাকায় এক বা একাধিক এ্যাপার্টমেন্ট বা বাড়ির মালিক হন তাহলে এ পদ্ধতিতে নতুন কোন বিনিয়োগের ঘোষণা প্রদান করলে ঐ করদাতাকে বাড়ী বা এ্যাপার্টমেন্ট ক্রয়ে/ নির্মাণে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে উপরোক্ত সারণী অনুযায়ী প্রদেয় করের অতিরিক্ত ২০% কর প্রদান করতে হবে। একইভাবে কোন করদাতা যদি একই সাথে একাধিক বাড়ী অথবা এ্যাপার্টমেন্ট ক্রয়ে/ নির্মাণে বিনিয়োগ এ পদ্ধতিতে ঘোষণা প্রদান  করতে চান তাহলে ঐ করদাতাকেও এরূপ একাধিক বাড়ী অথবা এ্যাপার্টমেন্ট প্রত্যেকটির জন্য প্রযোজ্য হারের অতিরিক্ত ২০% কর প্রদান করতে হবে।

উদাহরণ
জনাব বি আলম ঢাকা সিটি কর্পোরেশন এলাকায় একটি এ্যাপার্টমেন্ট এর মালিক। তিনি ২০১৪-২০১৫ আয় বছরে ঢাকার বারিধারা এলাকায় ১৯০ বর্গমিটার আয়তন বিশিষ্ট আরো একটি এপার্টমেন্ট ক্রয় করেছেন। তিনি ২০১৫-১৬ কর বছরে এই বিনিয়োগ 19BBBBB ধারায় ঘোষণা করতে চাইলে তাঁকে কর মামলা নিষ্পত্তির পূর্বেই নিম্নরূপ অংকের কর পরিশোধ করতে হবে ঃ

ঢাকার বারিধারায় অবস্থিত ১৯০ বর্গ মিটার বিশিষ্ট এপার্টমেন্টের বিপরীতে প্রতি বর্গ মিটারে করের হার ৫০০০ টাকা
১৯০ বর্গ মিটার আয়তনের এপার্টমেন্ট ক্রয়ে বিনিয়োগ বাবদ করের পরিমাণ দাড়ায়- ১৯০ বর্গমিটার ৫০০০ টাকা = ৯,৫০,০০০ টাকা

তিনি ইতোপূর্বে একটি এ্যাপার্টমেন্টের মালিক বিধায় তাঁকে আরো ২০% অতিরিক্ত কর প্রদান করতে হবে। ফলে 19BBBBB ধারায় এ্যাপার্টমেন্টের  বিনিয়োগ প্রদর্শন করতে চাইলে তাঁকে অতিরিক্ত ১,৯০,০০০ টাকা ( ৯,৫০,০০০ X ২০%) কর প্রদান করতে হবে। অর্থাৎ এ্যাপার্টমেন্ট ক্রয়ে তাঁকে মোট কর প্রদান করতে হবে (৯,৫০,০০০ টাকা + ১,৯০,০০০ টাকা ) = ১১,৪০,০০০ টাকা।

►     অবৈধ উপায়ে বা অপরাধ সংঘটনের মাধ্যমে অর্জিত অর্থ এক্ষেত্রে বিনিয়োগ করা যাবে না।
►    বিনিয়োগ সংক্রান্ত কর প্রদানের এ বিধানটি ঐচ্ছিক। অর্থাৎ যে কোন করদাতা ইচ্ছা করলেই 19BBBBB ধারায় এরূপ কর প্রদান ছাড়াই প্রচলিত নিয়মে বিনিয়োগের ব্যাখ্যা প্রদান করতে পারবেন।
►   অনাবাসিক বাড়ী বা এ্যাপার্টমেন্ট অর্থাৎ বাণিজ্যিক বাড়ী বা এ্যাপার্টমেন্টের ক্ষেত্রে এ পদ্ধতিতে বিনিয়োগ প্রদর্শন করা যাবে না।
►   কর মামলা অনিষ্পন্ন থাকলে পূর্ববর্তী বিনিয়োগ সংশ্লিষ্ট যে কোন কর বছরের কর নির্ধারণের পূর্বে কর পরিশোধের মাধ্যমে এ পদ্ধতিতে বিনিয়োগ প্রদর্শনের সুযোগ গ্রহণ করা যাবে।
►    কোন কর মামলা যদি একবার নিষ্পত্তি হয়ে যায় তাহলে পরবর্তীতে কোন কার্যক্রমের (যেমন ৯৩ ধারা, ১২০ধারা, ১৫৬ ধারা, ১৫৯ ধারা বা অন্য কোন ধারার অধীন চালু কার্যক্রম) মাধ্যমে কর মামলা পুনঃনিষ্পত্তির পূর্বে 19BBBBB ধারায় বিনিয়োগ প্রদর্শনের সুযোগ থাকবে না।

(খ) অর্থ আইন-২০১০ মোতাবেক, ধারা ১৯ সি এর অধীনে ১ জূলাই২০১০ হইতে ৩০ জুন ২০১২ সময়ের মধ্যে ১০% আয়কর পরিশোধ সাপেক্ষে Bangladesh Infrastructure Finance Fund  এর আওতায় ইসুকৃত বন্ডে কোন অর্থ  বিনিয়োগ করা হইলে উক্ত বিনিয়োগকৃত অর্থের উৎসের বিষয়ে কোন প্রশ্ন করা হইবে না।

গ) স্বেচ্ছায় আয় ঘোষণা সংক্রান্ত নুতন ধারা 19E
কর অনারোপিত আয় প্রদর্শনের সুযোগ সম্বলিত বিধান ধারা  19E আয়কর অধ্যাদেশ, ১৯৮৪ এ সংযোজন করা হয়েছে। এ বিধান অনুযায়ী পূর্ববর্তী এক বা একাধিক কর বছরের কর অনারোপিত আয় করদাতা তার আয়কর রিটার্নে শর্ত সাপেক্ষে প্রদর্শন করতে
পারবেন। উক্ত কর অনারোপিত আয় চলতি কর বছরের আয়কর বিবরণীতে প্রদর্শন পূর্বক চলতি কর বছরের প্রযোজ্য হারে আয়কর পরিশোধ এবং কর অনারোপিত আয়ের উপর প্রযোজ্য আনুপাতিক আয়করের ১০% হারে জরিমানা পরিশোধ করতে হবে।

নবপ্রবর্তিত এ বিধানের বৈশিষ্ট নিম্নরূপঃ
*    ব্যক্তি, কোম্পানী বা যে কোন করদাতা এ সুযোগ গ্রহণ করতে পারবেন;
*    পূর্ববর্তী যে কোন বছরে আয়কর রিটার্ণ দাখিল করেননি এমন করদাতা ঐ বছর বা বছর সমূহে আয় থাকলে তা ঘোষণা পূর্বক চলতি কর বছরের রিটার্নে প্রদর্শন করতে পারবেন;
*    পূর্ববর্তী এক বা একাধিক বছরে আয়কর রিটার্ণ দাখিল করা হয়েছিল এবং আয়কর নির্ধারণ কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়েছে কিন্তু কিছু আয় প্রদর্শন করা হয়নি বা আয়কর নির্ধারণ থেকে এড়িয়ে যাওয়া হয়েছে, সেক্ষেত্রে এ অপ্রদর্শিত আয়ও চলতি কর বছরের আয়কর রিটার্ণে প্রদর্শন করতে পারবেন;
*    আয়কর অধ্যাদেশে বর্ণিত ৭টি আয়ের খাতের মধ্যে যে খাতে আয় অপ্রদর্শিত ছিল সেই খাতেই এ অপ্রদর্শিত আয় প্রদর্শনযোগ্য;
*    চলতি কর বছরের সংশি−ষ্ট খাতে অর্জিত আয়ের সাথে পূর্ববর্তী বছর বা বছর সমূহে অপ্রদর্শিত আয় একত্রিত করে প্রদর্শনযোগ্য। যেমন ব্যবসা খাতের আয় অপ্রদর্শিত থাকলে ব্যবসা খাতেই তা প্রদর্শন করতে হবে;
*    ২০১২-২০১৩ কর বছর বা তৎপরবর্তী করবছর সমূহে (এ বিধান বলবৎ থাকা সাপেক্ষে) অপ্রদর্শিত আয় প্রদর্শন করা যাবে;
*    যে কর বছরে এ অপ্রদর্শিত আয় প্রদর্শিত হবে সেই কর বছরের জন্য প্রযোজ্য করহার অনুযায়ী আয়কর প্রদেয় হবে;
*    কর অনারোপিত আয়ের উপর প্রযোজ্য আনুপাতিক আয়করের ১০% হিসেবে জরিমানা আরোপযোগ্য হবে;

*    প্রযোজ্য ক্ষেত্রে সারচার্জ আরোপিত হবে।

এছাড়াও কর অনারোপিত আয় প্রদর্শনের ক্ষেত্রে নিম্নোক্ত শর্র্তাবলী পরিপালন করতে হবেঃ
(ক) আয়কর অধ্যাদেশের ৭৫(২) ধারায় উলে−খিত সময়সীমার মধ্যে আয়কর রিটার্ন দাখিল করতে হবে;
(ঘ) দাখিলকৃত রিটার্নের সাথে করদাতার নাম, কর অনারোপিত আয়ের খাত, কর অনারোপিত আয়ের পরিমান, প্রযোজ্য   আয়কর ও জরিমানার পরিমান উলে−খপূর্বক পৃথক কাগজে এ সংক্রান্ত একটি ঘোষণা পত্র দাখিল করতে হবে। তবে, নিুোক্ত ক্ষেত্রসমূহে কর অনারোপিত আয় প্রদর্শন করা যাবে নাঃ
(ক) আয়কর অধ্যাদেশের ৯৩ (৩)(বি) ধারার আওতায় কোন করদাতার বিরুদ্ধে নোটিশ প্রদান করা হলে এবং এ নোটিশের কার্যক্রম নিষ্পত্তিকৃত না হলে;
(খ)  আয়কর অধ্যাদেশের ১১৩(এফ) ধারা অনুযায়ী কোন করদাতার বিরূদ্ধে ব্যাংক হিসাব তলল্লশী বা পরীক্ষার জন্য ব্যাংকে পত্র প্রেরণ করা হলে বা পত্রের প্রেক্ষিতে  গৃহীত কার্যক্রম চলমান থাকলে;
(গ) কোন করদাতার বিরুদ্ধে আয়কর অধ্যাদেশের ১৬৪, ১৬৫ বা ১৬৬ ধারায় কার্যক্রম গৃহীত হলে এবং উপরোক্ত কার্যক্রম চলমান থাকলে ;
(ঘ) এরূপ প্রদর্শিত আয় কোন বৈধ আয়ের উৎস থেকে উদ্ভূত না হলে বা অপরাধ মূলক কোন কার্যক্রম থেকে উদ্ভূত হলে। পূর্বে কর অনারোপিত কিন্তু সংযোজিত বিধানের ফলে প্রদর্শিত আয় যে কোন শিল্প প্রতিষ্ঠায় বা শিল্প সম্প্র্রসারণে, বিদ্যমান শিল্পের BMRE, হাউজিং খাত হিসেবে বাড়ী বা এ্যপার্টমেন্ট ক্রয় বা নির্মাণ বা জমি ক্রয়ে, ষ্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত যে কোন কোম্পানীর সিকিউরিটিজ (ষ্টক, শেয়ার, বন্ড, ডিবেঞ্চার, ইত্যাদি) ক্রয়ে, পণ্য বা সেবা উৎপাদনে নিয়োজিত যে কোন ব্যবসা বা বাণ্যিজ্যিক বা শিল্প উদ্যোগ খাতসহ অন্য কোন খাত বা যে কোন আয় সৃষ্টিকারী কার্যক্রমে (income generating activities) বিনিয়োগ করা যেতে পারে।

দুই কোটি টাকার অধিক সম্পদ আছে এমন করদাতা 19E ধারায়ন কর অনারোপিত আয় প্রদর্শন করলে উক্ত কর অনারোপিত আয়সহ মোট আয়ের উপর প্রযোজ্য করের ১০% হারে সারচার্জ প্রদেয় হবে।
কোন করদাতা ১৯ঊ ধারায় কর অনারোপিত আয় প্রদর্শন করলে উক্ত কর অনারোপিত আয়সহ মোট আয় বিনিয়োগ রেয়াতের জন্য ভিত্তি হিসেবে গণ্য হবে।
19E ধারায় পরিশোধিত আয়কর ও জরিমানার উৎস ব্যাখ্যা করতে হবে।

নিুোক্ত উদাহরণের মাধ্যমে এ বিধান অনুযায়ী কর অনারোপিত আয় প্রদর্শন, প্রযোজ্য আয়কর, জরিমানা ও সারচার্জ প্রদানের বিষয়টি উল্লেখ করা হলোঃ
জনাব আজগর আলী একজন পুরাতন করদাতা যিনি ১৯৭৬ সাল থেকে আয়কর রিটার্ন দাখিল করে আসছেন। জুলাই, ২০১৩ মাসে জনাব আলী দেখলেন যে, ২০০৭-২০০৮ করবর্ষ থেকে ২০১৫-২০১৬ করবর্ষ পর্যন্ত বিভিন্ন করবর্ষে মোট ১৬,০০,০০০/- টাকা
ব্যবসা খাতে তাঁর কর অনারোপিত আয় রয়েছে। তিনি ২০১৪- ২০১৫ করবর্ষের আয়কর রিটার্নের সাথে ১৯ঊ ধারায় কর অনারোপিত আয় ১৬,০০,০০০/- টাকা প্রদর্শনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন। বিবেচ্য করবর্ষে তাঁর রেয়াতযোগ্য বিনিয়োগ দাবী ৫,০০,০০০/- টাকা এবং প্রদর্শিত নীট সম্পদের পরিমাণ ২,৫০,০০,০০০/- টাকা। ২০১৫-২০১৬ করবর্ষের সার্বজনীন স্বনির্ধারণী পদ্ধতিতে দাখিলকৃত আয়কর রিটার্নের সাথে পৃথক বিবরণীতে তিনি নিুরূপ আয় বিভাজন দেখিয়েছেনঃ

আয়ের উৎস ২০১৪-২০১৫ কর বর্ষের আয় 19E ধারায় আয় ঘোষণা      মোট
ব্যবসা আয়  ৪,০০,০০০/- ১৬,০০,০০০/-  ২০,০০,০০০/-
বাড়ীভাড়া আয়  ১,০০,০০০/- ---  ১,০০,০০০/-
অন্যান্য উৎসের  আয়  ১,০০,০০০/-     ----  ১,০০,০০০/-
মোট ৬,০০,০০০/-   ১৬,০০,০০০/-   ২২,০০,০০০/-


   এক্ষেত্রে, জনাব আজগর আলীকে ২০১৫-২০১৬ করবর্ষে নিুরূপে আয় পরিগণনা পূর্বক আয়কর প্রদান করতে হবেঃ
    ২০১৪-১৫ করবর্ষে অর্জিত আয়                                                                        ৬,০০,০০০/- টাকা
    কর অনারোপিত আয়                                                                                   ১৬,০০,০০০/- টাকা

    মোট আয়                                                                                                  ২২,০০,০০০/- টাকা
    মোট প্রদেয় করের পরিমান-                                                                            ৩,৪০,৫০০/- টাকা
    বাদ বিনিয়োগ রেয়াত                                                                                        ৭৫,০০০/- টাকা
    প্রদেয় কর                                                                                                  ২,৭২,৫০০/- টাকা
কর অনরোপিত আয়ের উপর আরোপযোগ্য
    কর হবে নিুরূপ:
               ৩,০৫,০০০ x ১৬,০০,০০০                        = ১,৯৮,১৮২ টাকা
    ২২,০০,০০০
    ১০% হিসেবে জরিমানা হবে                                         ১৯,১৮২/- টাকা
    মোট প্রদেয় করের পরিমাণ -                                      ২,১৮,০০০/- টাকা
    সারচার্জ ১০% হারে---                                                ২১,৮০০/- টাকা
    নীট প্রদেয় করের পরিমাণ                                          ২,৩৯,৮০০/- টাকা।

ফলে, জনাব আজগর আলীকে ২০১৫-২০১৬ কর বছরের ২,৩৯,৮০০/- টাকা কর বাবদ প্রদান করতে হবে এবং আয় হিসেবে নিরূপিত ২২,০০,০০০/- টাকার সুবিধা তিনি গ্রহণ করতে পারবেন। জনাব আলী তাঁর আয়কর বিবরণীর সাথে পৃথক কাগজে কর অনারোপিত আয়ের খাত ও পরিমাণ, কর অনারোপিত আয়ের জন্য প্রযোজ্য আয়কর ও জরিমানার পরিমাণ উল্লেখ পূর্বক উপ কর কমিশনার বরাবর একটি ঘোষণাপত্র দাখিল করবেন।
করদাতা কর্তৃক 19E ধারার আওতায় ঘোষিত আয়কে পরবর্তী কর বছরের আয় নির্ধারণের ক্ষেত্রে ভিত্তি হিসেবে বিবেচনা করা যাবে না। করদাতার এরূপ সার্বজনীন স্বনির্ধারনী রিটার্ন অডিটের জন্য নির্বাচন করা হলে অডিটের কার্যক্রম শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট কর বছরের মূল আয়ের উপর পরিচালিত হবে।